সন্তান দের যে আমল গুলো শেখাতে হবে

সন্তান দের যে আমল গুলো শেখাতে হবে। প্রিয় পাঠক Education Family পক্ষ থেকে  আপনাদের সকলের প্রতি  রইলো আন্তরিক মোবারকবাদ ও সম্মানসুচক সালাম “ আসালামুয়ালাইকুম “ । আজকে আমাদের আলোচ্য বিষয় “ সন্তান্ দের  যে আমল গুলো শেখাতে হবে”।  সন্তান দের কি শিক্ষা দিতে হবে সেটা জানার  আগে আমাদের নিজেদের যে আমল গুলো করতে হবে সেটা জানা জরুরি ।

আমাদের প্রতিদিন যে আমল গুলো করা জরুরিঃ

১। আমাদের প্রতিদিন কোরআন আধ্যায়ন করতে হবে। ( কম পক্ষে ৩ থেকে ৫ আয়াত)

২। প্রতিদিন  হাদীস পাঠ করতে হবে।  ( ২ টি ) 

৩। প্রতিদিন  ইসলামি সাহিত্য পাঠ করতে হবে।

৪। প্রতিদিন নবী (সাঃ) জীবনী পাঠ করতে হবে।

৫। সাহাবীদের বা সাহায়াদের জীবনী পাঠ করতে হবে।

৬। আরো ভালো হয় মাঝে মাঝে কিছু শিক্ষামুলক লেকচার দেখলে।

উপরোক্ত বিষয়গুলো নিজেরা যেমন অনুশীলন করবো তেমনি সন্তান দের সে আলোকে শিক্ষা প্রদান করবো।  আমাদের পরিবারে যদি ১৫  কিংবা তার চেয়ে বেশি বয়সের  সন্তান থাকে তাহলে তাদের হাতে এই ধরনের বই তুলে দিবো। আবার যদি ৮, ১০, ১২ এই বয়সের সন্তান থাকে তাহলে তাদের উপযোগী কোরআনের কাহিনী বা সাহাবীদের জীবনী একটু সহজের বা সহজ ভাষার বই গুলো পড়তে উৎসাহিত করতে হবে।

আবার, খুব ভাল হয় যদি আমরা পারিবারিকভাবে  বসে কিংবা আলাদা সময় বের করে গ ল্প আকারে তাদের কাছে নবী (সা;), বা বিভিন্ন মনীষদের জীবনী বলা। এছাড়া কোরআনের কোন সুরা নাযিলের কাহিনী গল্পের মত করে তাদের কাছে বলা। এভাবে আমরা সন্তান দের মধ্যে ধর্ম সম্পর্কে  অনেক আবেগ সৃষ্টি  করতে পারি। যেটা পরে তাদের কে ইসলামের পথে চলতে সাহায্য  করবে।

এর পর আমরা আর একটি কাজ করতে পারি। তাহলো ছোট ছোট আয়াত মুখস্ত করা।  অনেকে জানে অনেকে জানে না। যারা জানে না তারা শিখে নিবে এবং যারা জানে তারা শিখে দিবে। লজ্জার কিছু নাই। কারণ এই করোনার সময়  ঘরে বসে থেকে সময় নষ্ট না করে আম পারার ছোট ছোট সুরাগুলি মুখস্ত করতে পারি। হয়তো স্মৃতি শক্তি সবার সেভাবে কাজ করতে না পারে। সেক্ষেত্রে ভাল হয় যদি আপনে যে সুরাগুলি মুখস্ত করছেন সেগুলোর  তাফসীর পড়তে পারেন।

এর পাশাপাশি আমরা ইউটিউবে বিভিন্ন ইতিহাস ভিত্তিক ভিডিও দেখতে পারি। যেমন রাসুল (সা) এর জীবনীকে কেন্দ্র করে মুভি দেখতে পারেন। এটা পরিবারেরর সবাই মিলে দেখতে পারেন। এই মুভির বাংলা ও আপনারা দেখতে পারেন। এই ধরনের ইতিহাস ভিত্তিক কিছু দেখা আবার মুসলিম কিছু কিডস কার্টন আছে বাচ্চাদের দেখার জন্য। এটা কিন্তু আনন্দের ও হতে পারে। এভাবে আনন্দের মাধ্যমে আমরা আল্লাহ এবং আল্লাহ র রাসুল কে জানতে পারি চিনতে পারি।

আমাদের আর একটি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে যে আমরা কিন্তু প্রত্যেকে আল্লাহ র খলিফা। আমাদের প্রধান কাজ ই হবে আল্লাহ্‌কে সন্তুষ্টির  উদ্দ্যেশে। আমরা যেন দুনিয়াকে আখিরাতের চেয়ে গুরত্ব না দিই। এটা আমাদের সন্তান দেরকেও বুঝাতে হবে। আর এরকম ভাবে যখন আমরা বুঝতে শিখবো তখন কিন্তু আমরা খুব সাদাসিদে জীবন যাপন করতে পারবো। এভাবে আমরা খুব সহযে আল্লাহকে কাছে পেতে পারি।
আমাদের পরিবারে যদি ছোট বাচ্চা থাকে তাহলে তাদের সাথে মা বোনদের খুব খেয়াল রাখতে হবে এবং সময় দিতে হবে। তাদের কানের কাছে সুর করে কোরআনের সুরা শুনাতে হবে। অথবা ইসলামী সংগীত গুলো সুর করে শুনানোর চেষ্টা করতে পারেন। সন্তান এর প্রতি মা এর সময় দেওয়ার  চাইতে উৎকৃষ্ট কিছু হতে পারে না। এর পাশাপাশি আমরা জামাতে নামাজ আদায় করতে পারি। জামাতে নামাজ আদায় করলে পরিবারের ছোট বাচ্চাগুলো অনুস্বরণের মাধ্যমে অনেক কিছু শিখতে পারে। এই ছোট বাচ্চা নামাজ পড়ুক কি না পড়ুক সে কিন্তু দেখতে দেখতে শিখবে। আপনে লক্ষ করলে বুঝতে পারবেন সে কিন্তু মাঝে মাঝে সিজদা দিচ্ছে।  এভাবে আমরা আমাদের মধ্যে অভ্যাসের মাধ্যমে নিজেদের ভবিষত সৃষ্টি করতে পারি।

আমরা অনেক সময় মনে করি বাচ্চারা কিছু বুঝে না। কিন্তু তা ঠিক নয়, তারা তাদের মত করে অনেক কিছু বুঝে। আরেকটি বিষয় খেয়াল করলে আপনারা বুঝতে পারবে্নারা,  আপনারা যদি ভাল পোশাক পড়েন তাহলে বাচ্চারাও তা অনুকরণ করে থাকে। তাই আমাদের উচিত উত্তম পোশাক পরিধান করা।  উত্তম পোশাক মনের ভিতর খুশির খোরাক এনে দেয়। এটা অত্যান্ত জরুরি। আরামদায়ক  পোশাক পরিধান করে আল্লাহ র কাছে আপনার পরিবার বাচ্চাদের জন্য দুআ করেন যেন আমাদের সন্তানেরা উপরোক্ত আমল গুলো সহিভাবে পালন  করতে পারেন। আবারো স ক লের সু –সাস্থ্য কামনা করে আজকে আমাদের আলোচ্য বিষয় “ সন্তান্ দের  যে আমল গুলো শেখাতে হবে” শিরোনামটি শেষ করছি।

নিচের গুরত্ব পুর্ণ লিংকগুলো দেখে আসতে পারেন।

What is the need for a student’s teaching method?

মাথা ব্যথার বিভিন্ন কারণ ও সমাধান। (প্রথম পর্ব)

আব্বাস উদ্দীনের অনুরোধে নজরুলের লেখা ইসলামি গান।

Contact-form

আমার সর্ম্পকে

মুশফিক আর কদিন ব্যাটিং করতে না পারলে মরে যাবে

Privacy Policy, Who we are? Who we are?

সন্তান দের যে আমল গুলো শেখাতে হবে।

Spread the love