৮ম শ্রেণির কৃষি শিক্ষা এসাইনমেন্ট অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর

৮ম শ্রেণির কৃষি শিক্ষা এসাইনমেন্ট অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ || ৮ম শ্রেণির কৃষি শিক্ষা এসাইনমেন্ট অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর২০২১ সালের ৮ম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্ন প্রকাশ করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর৮ম শ্রেণির কৃষি শিক্ষা এসাইনমেন্ট অ্যাসাইনমেন্ট উত্তরসহ সকল শ্রেণির সকল বিষয়ের এসাইনমেন্টের জন্য চোখ রাখুন এই সাইটে।

পিডিএফ ফাইল পেতে নিচে ডাউনলোড লিংক দেখেন। ৮ম শ্রেণির কৃষি শিক্ষা এসাইনমেন্ট অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর।

১ নং প্রশ্নের উত্তর :

বাংলা নববর্ষকে যে কারণে সার্বজনীন উৎসব বলতে পারি তা নিম্নে ব্যাখ্যা করা হলাে :

শহরের কৃত্তিমতা আর গ্রামীণ ঐতিহ্য মিলিয়ে বর্তমানে যা বাংলাদেশের একমাত্র অসাম্প্রদায়িক ও সার্বজনীন উৎসব, তাই হচ্ছে বাংলা নববর্ষ । মােঘল আমল থেকেই বাঙ্গালি জাতি বাংলা বর্ষ বরণের এই উৎসবটিকে নিজেদের মতাে উদযাপন করে একটা সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যে রূপদান করেছে। তা আজও পর্যন্ত বলবৎ রয়েছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। তবে | এও সত্য যে, ধর্মীয় কোন বিধি নিষেধ না থাকলেও সত্যিকারভাবে এই উৎসবটি উদযাপনে সকল ধর্ম – বর্ণের মানুষের সাড়ম্বর উপস্থিতি ও অংশগ্রহণে কিছুটা সংকীর্ণতাও বেশ জোড়ালাে ভাবে পরিলক্ষিত হচ্ছে কিছু কাল ধরে।

এদেশে বিভিন্ন ধর্ম বর্ণের উপস্থিতি সত্ত্বেও নববর্ষ উদযাপনে মৌলবাদিতার যে বাধা রয়েছে তা বাঙ্গালি সংস্কৃতির উত্তোরণের পথে যে একটা বড় রকমের বাধা তা বলাই যেতে পারে। অথচ এই ধরনের অনুষ্ঠান উদযাপনের মাধ্যমে প্রত্যেকটি দেশ তার নিজস্ব সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, জাতীয় নিজস্বতা  বিশ্ব দরবারে হাজির করে।

দেশের দ্বিতীয় বৃহৎ জনগােষ্ঠী হিন্দু সম্প্রদায় ; এই উপমহাদেশে যাদের আবির্ভাব মুসলমানেরও পূর্বে। তখন সকল কর্তৃত্ব – ক্ষমতা ও জমিদারিত্ব ছিল তাদের ধর্মীয় ভাবধারাও জড়িত হয়ে গেছে। তবে ধর্মীয় । দৃষ্টিকোণ থেকেই হােক বা জাতীয়তাবাদের চেতনা থেকেই হােকনা কেন , পহেলা বৈশাখকে কিন্তু তারা সাধ্যমত উদযাপন করে থাকে।

হালখাতা পহেলা বৈশাখের অন্যতম প্রধান আয়ােজন | বাবা কিংবা বড় ভাইয়ের হাত ধরে গুটি গুটি পাযে বাজারে নন্দনাল রায় এর দোকানের হালখাতার মিষ্টি  খেলে তাে বৈশাখ উদ্যাপন সার্থকতাই পায় না। | হিন্দু ব্যবসায়ীদের কাছে ভােক্তা বা গ্রাহক দেবতাতুল্য ।

  ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে তারা দেবতা গণেশের যে ছবিটি রাখেন তা ভােক্তাদেরও সেই মর্যাদাই প্রদান করেন । তাই বছরের শুরুতেই দেবতাকে প্রসাদ দিয়েই তারা হিসাবের নতুন খাতা খুলেন। অনেকে আবার এভাবেও চিন্তা করেন যে সারা বছর যে বাকির লেনদেন হয়েছে তা মিটিয়ে নেবার জন্যই ব্যবসায়ীর হালখাতার আয়ােজন করেন। তবে হালখাতা এখন | আর হিন্দুদের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। কিছু কিছু  অন্যধর্মীয় ব্যবসায়ীরাও আজকাল হালখাতার বাঙালি নিজ নিজ সামর্থ্য অনুযায়ী নতুন বছরের প্রথম দিনটিকে উদযাপন করে। এই জন্যই বাংলা নববর্ষকে আমরা সার্বজনীন উৎসব বলতে পারি।

২ নং প্রশ্নের উত্তর :

বাংলা নববর্ষ যেভাবে উৎযাপন করা হয় তা নিম্নরূপ:

নববর্ষের উৎসবের সাথে যদিও আবহমান গ্রামবাংলার নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে, তবে বর্তমানে গ্রামের গন্ডি পেরিয়ে বর্ষবরণ উৎসবের আবেদন শহরগুলিতেও ছড়িয়ে পড়েছে। প্রতিবছর “ এসাে হে বৈশাখ, এসাে, এসাে” গানের মাধ্যমে রাজধানীর বর্ষবরণ উৎসব শুরু হয়। উৎসবের মূল আয়ােজক ছায়াৰ পহেলা বৈশাখ ভােরে এ অনুষ্ঠানটি আযােজন রে। রাজধানীর বর্ষবরণ উৎসবের অন্যতম অনিবার্য অংশ ‘মঙ্গল শােভাযাত্রা’। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে পহেলা বৈশাখ সকালে সােভাযাত্রাটি চারুকলা ইনস্টিটিউট থেকে শুরু করে। শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় চারুকল, ইনস্টিটিউটে এসে শেষ হয়। এ শােভাযাত্রায় চারুকলা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করে। ১৯৮৯ সালে সর্বপ্রথম কলা ইনস্টিটিউট আয়ােজিত আনন্দ শােভালাই পরবর্তীতে ১৯৯৫ সাল থেকে মঙ্গল শােভাযাত্রা নামে পালিত হয়ে আসছে। নববর্ষ উদযাপনে সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ জাতি – ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে অংশগ্রহণ করে। এদিন বাঙালি মেয়েরা ঐতিহ্যবাহী পােশাক শাড়ী এবং পুরুষেরা পাজামা-পাঞ্জাবি পরিধান করে। প্রত্যেক ঘরে ঘরে থাকে বিশেষ খাবার বিশেষত পান্তা ইলিশ, নানা রকম পিঠাপুলির ব্যবস্থা। সর্বোপরি সকল স্তরের বাঙালি নিজ নিজ সামর্থ্য অনুযায়ী নতুন বছরের  প্রথম দিনটিকে উদযাপন করে।

বাংলা নববর্ষের অন্যতম আকর্ষণ বৈশাখী মেলা | | শহরের তুলনায় গ্রামে এ মেলা অধিকতর  জাকজমকপূর্ণ হয়ে থাকে। এ মেলার সব থেকে বড় বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, এটি কোনাে ধর্মীয় ঐতিহ্য নির্ভর নয় বরং এটি বাঙালির সর্ববৃহৎ সার্বজনীন উৎসব। মেলায় চিরায়ত বাঙালি ঐতিহ্য, রীতি – প্রথা ফুটে  ওঠে।

 প্রাচীন বাংলার নানা সংস্কৃতি যেমন-যাত্রা , | পুতুল নাচ , সার্কাস, বায়ােস্কোপ , নাগরদোলা। ইত্যাদি মেলার প্রধান আকর্ষণ। বৈশাখী মেলাতে নানা রকম কুটির শিল্পজাত সামগ্রী , মাটির হাঁড়ি, বাসন – কোসন, পুতুল, বেত ও বাঁশের তৈরি তৈজস খেলনা , তালপাখা প্রভৃতি পাওয়া যায়। এছাড়া চিড়া মুড়ি, খৈ, বাতাসাসহ নানারকম মিষ্টান্নের বৈচিত্র্যময় সমারােহ থাকে বৈশাখী মেলায়। বর্তমানে এ মেলা। সর্ববৃহৎ লােকজ মেলায় পরিণত হয়েছে।

৩ নং প্রশ্নের উত্তর :

আমার এলাকায় বৈশাখী মেলায় যেসকল জিনিস পাওয়া যায় :

আমার এলাকায় প্রতি বছরই বৈশাখী মেলা উৎযাপি হয়। আমার এলাকায় বৈশাখী মেলায় যেসকল

জিনিস পাওয়া যায় তার বর্ণনা দেওয়া হলাে :

বৈশাখী মেলা বা বৈশাখের মেলা হচ্ছে একটি বাঙালি উৎসব মেলা, যা বাংলাদেশ এবং বাংলা দেশের বাইরে আয়ােজিত হয়। এটি একটি সার্বজনীন উৎসব, যা বর্তমানে বাংলাদেশের বাইরেও যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য এবং কানাডাসহ বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্রে বাংলাদেশি প্রবাসী কর্তৃক প্রচুর পরিমাণ বাংলাদেশিদের অংশগ্রহণের সাথে আযােজন করা হয়।

বাংলা নববর্ষের অন্যতম আকর্ষণ বৈশাখী মেলা। এটি খুবই আনন্দমুখর উৎসব। স্থানীয় কৃষিজাত দ্রব্য, কারুপণ্য , লােকশিল্পজাত পণ্য, কুটির শিল্পজাত ইত্যাদি পণ্য এই মেলায় পাওয়া যায়। শিশু কিশােরদের খেলনা, মহিলাদের সাজ-সজ্জার  সামগ্রীসহ এই মেলায় তাদের জন্য আরাে অনেক বিশেষ সামগ্রী পাওয়া যায়।

এছাড়াও বিভিন্ন প্রকার খাদ্যদ্রব্য ও মিষ্টান্ন যেমন :চিড়া, মুড়ি, খৈ, বাতাসা ইত্যাদি এই মেলার বিশেষ আকর্ষণ। এ মেলায় বিনােদনের কোনাে অভাব থাকে না । বিনােদনের ক্ষেত্রে এ মেলায় বাঙালি সংস্কৃতি ফুটিয়ে তােলা হয়। এখানে বাঙালি লােকশিল্পীরা বিভিন্ন স্থান থেকে এসে যাত্রা, পালাগান, কবিগান, জারিগান, লােকসঙ্গীত, বাউল -মারফতি-মুর্শিদি-ভাটিয়ালি ইত্যাদি লােকগান এবং লাইলী মজনু, ইউসুফ-জুলেখা, রাধা-কৃষ্ণ ইত্যাদি আখ্যান পরিবেশন করেন। এছাড়া থাকে চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, নাটক, পুতুলনাচ, নাগরদোলা, সার্কাস ইত্যাদি; যা হচ্ছে মেলার বিশেষ  আকর্ষণ। পিডিএফ ফাইল পেতে নিচে ডাউনলোড লিংক দেখেন।

নিচের গুরত্ব পুর্ণ লিংকগুলো দেখে আসতে পারেন।

Class Eight English Assinment 8 week.

Class eight কৃষিভশিক্ষা ৬ সপ্তাহ সমাধান।

৬ষ্ঠ শ্রেণির এসাইনমেন্ট উত্তর ৭ম সপ্তাহ গ্ণিত।

৬ষ্ঠ শ্রেণি ৪র্থ সপ্তাহের এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর।

৯ম/নবম শ্রেণীর ৪র্থ সাপ্তাহের বাংলা এসাইনমেন্ট উত্তর

৬ষ্ঠ শ্রেণী চারু ও কারুকলা অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান ২০২১

সোনামণিদের ১০টি গুণাবলী

পরিসংখ্যানের জনগুরত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর

খুব গুরত্বপূর্ণ মনকাড়া সর্বদা পালনীয় কতগুলো উপদেশ।

হাশরের ময়দানে মানুষ ১২টি কাতারে বিভক্ত হবে

Best Quran Recitation in the World 2016 Emotional Recitation

Class Eight English Assinment 8 week. pdf answer follow the link

Mostafa Dewan

I can work with SEO, (off-page SEO) Link building, Facebook marketer, content writing, content rewrite, word press install, blog comment, backlink creation, article submission, blog post, etc. Any product or business I can reach millions of people through my work skills I understand the mentality of the customer. I am a very attractive and effective web content writer to promote any business. I work with full responsibility of a large organization able to work with self-direction and motivation. I find peace in the middle of my work. Thank you by Mostafa Dewan bdpnpc 01736265696 .

error

দয়া করে শেয়ার করবেন।

RSS
Follow by Email